how to protect My laptop

আপনার ল্যাপটপ এর উপর ভারী কিছু রাখবেন না। যেহেতু, ল্যাপট খুব বেশি মজবুত নয় এবং এর উপর প্রান্তে ডিসপ্লে (মনিটর) অংশ থেকে থাকে তাই ভারী কোন কিছু রাখা বা কোন চাপ পরার কারণে ল্যাপটপটির ডিসপ্লেতে দাগ পারে। প্রযুক্তির বাজারে ডিসপ্লে পরিবর্তন করাটা কিছুটা ব্যয়বহুল। 
https://microtq.blogspot.com/

আমরা অনেক সময় আমরা হাতের উপর ল্যাপটপ রেখে কাজ করি। এক্ষেত্রে ল্যাপটপ এক স্থান থেকে অন্যস্থানে সরানোর সময় কখনোই শুধু ডিসপ্লের (মনিটর) অংশে হাত রেখে সরাবেন না। হাতে রেখে কাজ করার ক্ষেত্রে সাবধানতা অবলম্বন করুন যেন আপনার হাত থেকে ল্যাপটপটি নিচে পরে না যায় ডিসপ্লেতে যাতে কোন প্রকার চাপ না পরে। যদিও এখন অনেক ল্যাপটপেই ‘ফল প্রোটেকশন’ দেয়া থাকে তবুও সেই প্রোটেকশনটি খুব কম দূরত্বে থেকে পরার ক্ষেত্রেই কাজ করে। মনে রাখবেন, ইলেকট্রনিক্স দ্রব্যাদির গ্যারান্টি অথবা ওয়ারেন্টির ক্ষেত্রে কিছু নিয়ম-কানুন উল্লেখ থাকে এবং সেই নিয়মের বাইরে কোন ভাবে যদি আপনি আপনার ডিভাইসটি নষ্ট করে ফেলেন সেক্ষেত্রে ওয়ারেন্টি অথবা গ্যারান্টি কাজ করবেনা।
https://microtq.blogspot.com/

মাইক্রো টেকনিক


এছাড়াও স্ক্রিন প্রোটেক্টরের সাথে সাথে কিবোর্ড প্রোটেক্টরও ব্যবহার করুন। এতে করে কিবোর্ডের কীগুলোর ফাঁক দিয়ে ধুলো জমবে না। বাজারে ১৫০ টাকার মধ্যে স্ক্রিন প্রোটেক্টর এবং ৭০ থেকে ৮০ টাকার মাঝে কিবোর্ড প্রোটেক্টর পাওয়া যায়। এছাড়াও আপনি মাঝে মাঝে মিনি ভ্যাকুয়াম ক্লিনার দিয়েও কিবোর্ড পরিষ্কার করতে পারেন। বাজারে ২৫০ টাকার মাঝে মিনি ইউএসবি ভ্যাকয়াম-ক্লিনার পাবেন।
আর কিবোর্ড এর ফাকায় ময়লা পরলে কিবোর্ড ঠিক মতো কাজ করে না।

আমরা অনেকেই বাসার কাজের জন্যও ল্যাপটপ ব্যবহার করে থাকি। সেক্ষেত্রে আমরা সাধারণত চার্জার লাগিয়েই ল্যাপটপ ব্যবহার করি। এখানে যে বিষয়গুলো খেয়াল রাখা উচিৎ তা হচ্ছে, প্রতিটি ল্যাপটপ ম্যানুফ্যাকচারারই তাদের ল্যাপটপ এর ব্যাটারির সুরক্ষার ক্ষেত্রে কিছু অ্যাপ্লিকেশন সরবরাহ করে থাকে। উদাহরণস্বরূপ, ডেল তাদের ল্যাপটপের সাথে ‘কুইকসেট’ নামের একটি অ্যাপ্লিকেশন সরবরাহ করে থাকে যেখানে কিছু অপশন থাকে যেমন, কত শতাংশ চার্জ হবার পরে ব্যাটারি আর চার্জ গ্রহণ করবেনা ইত্যাদি। কুইকসেটের সব ফিচারগুলোই ব্যাটারি রিলেটেড।

আপনিও আপনার ল্যাপটপটি জন্য এরকম অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করে ব্যাটারিকে কিছুটা হলেও সুরক্ষিত রাখতে পারেন। আর সপ্তাহে অন্তত ২-৩ বার ব্যাটারিতে ল্যাপটপটি চালাবেন। এতে করে আপনার ল্যাপটপের ব্যাটারি ভালো থাকবে।
Post a Comment